Nov 8, 2017
12 Views
Comments Off on তেড়ে যাওয়া শুভাশিষকেই আগলে রাখলেন মাশরাফি
0 0

তেড়ে যাওয়া শুভাশিষকেই আগলে রাখলেন মাশরাফি

বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের বরাবরই আগলে রাখেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। বুধবার রংপুর রাইডার্স ও চিটাগং ভাইকিংসের মধ্যকার ম্যাচে যেটি ঘটল সেটি বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের হতাশ ও ক্ষুব্ধ করে তোলে। জাতীয় দলের একজন নবীন খেলোয়াড়ই কি না তেড়ে গেলেন মাশরাফির দিকে। অখেলোয়াড়সূলভ আচরণের জন্য বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছেন চিটাগং ভাইকিংসের বোলার শুভাশিষ রায়। তবে ম্যাচ শেষে সেই শুভাশিষকেই আগলে রাখার চেষ্টা করলেন মাশরাফি।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ইনিংসের ঘটনা। ১৬৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করছে রংপুর রাইডার্স। শুভাশিসের করা ১৭তম ওভারে ইয়র্কার ডিফেন্স করেন মাশরাফি। নিজের বলে নিজেই ফিল্ডিং করে স্ট্রাইক প্রান্তে বল ছুঁড়তে উদ্যত হন শুভাশিষ। এসময় মাশরাফি তাকে বলেন, ‘বোলিং মার্কে ফিরে যা।’

মাশরাফির এমন কথা শুনেই তেড়ে যান শুভাশিষ। হতভম্ব হয়ে যান ম্যাশ। প্রথমে তানভির হায়দার, পরে জিম্বাবুইয়ান ক্রিকেটার সিকান্দার রাজাও এসে শুভাশিষকে নিভৃত করার চেষ্টা করেন। মাশরাফির যেন বিশ্বাসই হচ্ছিল না। ম্যাচ শেষে অবশ্য জাতীয় দলের জুনিয়র সদস্যকে আগলে রাখার চেষ্টা করেন বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক।

মাঠের ঘটনার বিষয়ে মাশরাফিকে প্রশ্ন করা হলে যেন কিছুটা অপ্রস্তুত হয়ে পড়েন তিনি। বলেন, ‘ওটা সিরিয়াস কিছু না। উত্তেজনার মুহূর্তে এটা অনেক সময় হয়। আমারই ‘সরি’ বলা উচিত। ওর জায়গা থেকে আমি মনে করি ঠিক আছে। কারণ সেও জিততে চাইছিল আমিও জিততে চেয়েছিলাম। আমি হয়তো ওখানে আরেকটু শান্ত থাকতে পারতাম।’

মাশরাফি জানিয়েছেন, রংপুরের এবং জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে আরো মাথা ঠাণ্ডা উচিত ছিল। এটা বলে হয়তো শুভাশিষকে আগলে রাখতে চাইলেন তিনি। যেমনটা বলছিলেন মাশরাফি, ‘আরেকটু মাথা ঠাণ্ডা রাখলে ভাল হতো। এমন সিরিয়াস কিছু হয়নি। তবে জানি না ওর কী করা উচিত ছিল। কিন্তু একজন সিনিয়র হিসেবে আমার ঠাণ্ডা থাকলে ভাল হতো।’

বিভাগ:
খেলা

Comments are closed.