Nov 5, 2017
9 Views
Comments Off on রাসূলুল্লাহ সা.-এর চোখে সেরা যারা
0 0

রাসূলুল্লাহ সা.-এর চোখে সেরা যারা

আধুনিক সভ্যতায় পোশাকের উন্নতি হয়েছে, কিন্তু নৈতিক অবক্ষয় চোখে পড়ার মতো। বর্তমান সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে পাপ-পঙ্কিলতার ছোবল কুরে কুরে খাচ্ছে সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব মানুষকে। এ অবস্থা থেকে মুক্তি আবশ্যক, আবশ্যক উত্তরণের পথ খোঁজা।

সর্বশ্রেষ্ঠ সমাজ সংস্কারক, উত্তম চরিত্রের অধিকারী হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) ছিলেন সভ্য জাতির মূল আবিষ্কারক। তিনি দেখিয়েছেন, দুনিয়ায় কীভাবে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হয়। বস্তুত নবী করিম (সা.)-এর পরশে ধন্য কিছু সোনার মানুষ এই সমাজকে পরিবর্তনের নেতৃত্ব দিয়েছেন।

নবী করিম (সা.)-এর ইন্তেকালের পর সমাজে আবারও পাপের সয়লাব হতে পারে, তাই তিনি কিছু গুণের কথা বলে গেছেন। যে গুণসম্পন্নরা সমাজ বদলে নেতৃত্ব দেবেন। নবীর দৃষ্টিতে সেরা এমন এগারো গুণসম্পন্ন মানুষ হলো-

এক. তোমাদের মধ্যে সর্বসেরা সে, যে কোরআন শিখে এবং শেখায়। -সহিহ বোখারি

দুই. নিশ্চয়ই তোমাদের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ সে, যে তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম আচরণের অধিকারী। -সহিহ বোখারি

তিন. তোমাদের মধ্যে সর্বসেরা ব্যক্তি সে, যে ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে ভালো। -সহিহ বোখারি

চার. তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম সে, যার কাছ থেকে সবাই কল্যাণ আশা করে, অনিষ্টের আশংকা করে না। -সুনানে তিরমিজি

পাঁচ. তোমাদের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ সে, যে তার পরিবারের নিকট ভালো। -ইবনে হিব্বান

ছয়. তোমাদের মধ্যে সে, সর্বোত্তম যে খাদ্য দান করে এবং সালামের জবাব দেয়। -সহিহুল জামে

সাত. তোমাদের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ ওই ব্যক্তি, যে নামাজে কোমলস্কন্ধ। অর্থাৎ কেউ নামাজের কাতারে প্রবেশ করতে চাইলে কাঁধ কোমল করে তাকে সুযোগ দেয়। -সুনানে আবু দাউদ

আট. সেরা মানুষ সে যার বয়স দীর্ঘ এবং কর্ম ভালো হয়। -জামিউল আহাদিস

নয়. সেরা মানুষ সে, যে মানবতার জন্য অধিক কল্যাণকর, উপকারি। -সহিহুল জামি

দশ. শ্রেষ্ঠ মানুষ হলো সে, যার অন্তর পরিচ্ছন্ন এবং মুখ সত্যবাদী। সাহাবারা প্রশ্ন করলেন, সত্যবাদী মুখ বুঝা গেলো, কিন্তু পরিচ্ছন্ন অন্তরবিশিষ্ট কে? নবী করিম (সা.) ইরশাদ করেন, যে অন্তর স্বচ্ছ, নির্মল, মুত্তাকি। যাতে কোনো পাপ নেই, বাড়াবাড়ি বা জুলুম নেই, নেই খেয়ানত ও বিদ্বেষ। -সহিহুল জামি

এগারো. আল্লাহর নিকট সর্বোত্তম সঙ্গী সে, যে তার সঙ্গীর কাছে উত্তম। আর আল্লাহতায়ালার নিকট সর্বোত্তম প্রতিবেশি সে যে তার প্রতিবেশির কাছে উত্তম। -সুনানে তিরমিজি

বর্ণিত হাদিসুগলো বিশুদ্ধতার মানদণ্ডে উত্তীর্ণ। তাই মানুষের উচিৎ, হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) কর্তৃক বর্ণিত সর্বোত্তম মানুষের গুণে নিজেকে গুণান্বিত করা।

রাসূলের আখলাক সম্বন্ধে জেনে, বুঝে সুন্দর সমাজ গড়ে তুলতে সচেষ্ট হওয়া। বস্তুত আদর্শবান ও মূল্যবোধসম্পন্ন মানুষই পারে সমাজের পরিবর্তন ঘটাতে। আল্লাহতায়ালা আমাদের তওফিক দান করুন। আমিন।

লেখক: শায়খ আহমাদুল্লাহ, ইসলাম প্রচারক, দাম্মাম ইসলামিক সেন্টার, সৌদি আরব

ট্যাগ:
বিভাগ:
ইসলাম

Comments are closed.